ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

দৈনিক কিশোরগঞ্জ
৫৮

‘যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে সবাইকে সচেতন হতে হবে’

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

কিশোরগঞ্জে যক্ষ্মা রোগ নিয়ন্ত্রণে সাংস্কৃতিক কর্মীদের অংশগ্রহণে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নাটাব কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার আয়োজনে রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে শহরের একটি রেস্টুরেন্টে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন নাটাব কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক সাইফুল হক মোল্লা দুলু। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান।

মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন নাটাব জেলা প্রতিনিধি মো. কামরুজ্জামান।

এতে যক্ষ্মা রোগের চিকিৎসা ও এ সম্পর্কিত বিষয়ে আলোকপাত করেন কিশোরগঞ্জ বক্ষব্যাধি ক্লিনিক ডেমিয়েন ফাউন্ডেশনের যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা এস. এম. আসাদুজ্জামান।

মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে কিশোরগঞ্জ ছড়াকার সংসদের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম জাহান, ঈশাখাঁ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রধান বদরুল হুদা সোহেল, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, জেলা উদীচী’র সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার বর্মন প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন।

সভায় নাটাবের পক্ষ থেকে যক্ষ্মা সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য সম্বলিত লিফলেট ও বুকলেট সরবরাহ করা হয়।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান বলেন, যক্ষ্মার ভয়াবহতা বিবেচনায় রেখে এ রোগ প্রতিরোধে ও নিয়ন্ত্রণে সচেতনতার বিকল্প নেই। নিয়মিত ও পূর্ণ মেয়াদের চিকিৎসায় যক্ষ্মা সম্পূর্ণ ভালো হয়।

সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সরকারি হাসপাতালগুলোতে এ রোগের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। কিন্তু জনসচেতনতার অভাবে অনেকেই এ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

এ ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টিতে সাংস্কৃতিক কর্মীরা ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারেন উল্লেখ করে সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান যক্ষ্মামুক্ত বাংলাদেশ গড়তে রোগটি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে তাদের কাজ করার অনুরাধ জানান।