ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • মঙ্গলবার   ১৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪২৭

  • || ২৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

দৈনিক কিশোরগঞ্জ
৮২

বিএনপির ষড়যন্ত্রে জল ঢেলে দিলো ভারত, শ্রিংলার সঙ্গে বৈঠক বাতিল!

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫ মার্চ ২০২০  

বিয়ের আসরে কনে পালালে যেমন অনুভূতি হয়, ঠিক সেই অনুভূতির সাগরে এখন ভাসছে বিএনপি। বুধবার (০৪ মার্চ) নির্ধারিত সময়ের মাত্র তিন ঘণ্টা আগে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের পূর্ব-নির্ধারিত বৈঠক বাতিল করে দেয় বাংলাদেশের ভারতীয় হাইকমিশন।

বুধবার (৪ মার্চ) সকাল ১০টায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নানা দিক বিবেচনা করে ভারতীয় হাইকমিশন বৈঠকটি বাতিল করেছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, দেশবিরোধী নানা ষড়যন্ত্রের ডালি সাজিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন শ্রিংলার কাছে নালিশ জানাবেন। সেই অনুযায়ী প্রস্তুতিও নিয়েছিলেন তারা। কিন্তু তীরে এসেই যেন তরী ডুবলো। নির্ধারিত সময়ের মাত্র তিন ঘণ্টা আগেই বাতিল হলো ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের বৈঠক।

বৈঠক বাতিলের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তবে ঠিক কী কারণে শেষ মুহূর্তে বৈঠকটি বাতিল হলো সে সম্পর্কে কিছু জানেন না বলেও এসময় মন্তব্য করেন তিনি। বৈঠকে আমির খসরুর পাশাপাশি দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদেরও অংশ নেয়ার কথা ছিল।

এ বিষয়ে জানতে শামা ওবায়েদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন,আমাকে এ নিয়ে জিজ্ঞেস করে কোনো লাভ হবে না, আমি কিছুই বলব না। কিছু জানার থাকলে দলের শীর্ষ নেতাদের কাছেই জানতে হবে।

দায়িত্বশীল একটি সূত্র বলছে, বাংলাদেশের রাজনীতিসহ অভ্যন্তরীণ কোন বিষয়ে নিয়ে কথা বলবে না ভারত। এমনকি তারা এ ব্যাপারে আগ্রহীও নয়। তবুও নালিশ-নির্ভর দল বিএনপি তাদের কাছে বিভিন্ন অভিযোগ করার সুদীর্ঘ একটি তালিকা তৈরি করে। যে খবর গোপন জানতে পারে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন। তারা নিশ্চিত হয় যে, বিএনপি তারেকের সাজা কমিয়ে দেশে আনা, খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ সরকারবিরোধী নানা অভিযোগ করবে। এ কারণে সব বিবেচনা করে বাধ্য হয়ে ভারতীয় হাইকমিশন বৈঠক বাতিল করে। কারণ, বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের একটি গভীর সুসম্পর্ক বিদ্যমান। তারা কোনোভাবেই চান না, এই সম্পর্কে ফাটল ধরুক। আর এই ষড়যন্ত্রটাই করতে চেয়েছিল বিএনপি। বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিয়ে তাতে জল ঢেলে দিয়েছে ভারতীয় হাইকমিশন।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাষ সিংহ রায় বলেন, সংবাদ সম্মেলন ও নালিশ-নির্ভর দল বিএনপির কাজই হচ্ছে দেশীয়-আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মহলে সরকারের নামে কুৎসা রটানো। মাঠের রাজনীতিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ এই দলটি তাই গোপনে-প্রকাশ্যে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের অপতৎপরতা। যারই অংশ হিসেবে তারা চেয়েছিল বৈঠকের আড়ালে ভারতকে বস্তাভর্তি নালিশ জানাতে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভারতীয় হাইকমিশনের বুদ্ধিমত্তায় তা ব্যর্থ হয়েছে।