ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৬ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

২৩৪

তিন মাসে ২৯ হাজার বিচারপ্রার্থীকে সরকারি খরচায় আইনি সেবা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ ডিসেম্বর ২০১৯  

জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থা চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ২৯ হাজার ১শ’ ১০ জন অসহায় বিচারপ্রার্থীকে সরকারি খরচায় আইনি সেবা প্রদান করেছে।

এ সময়ের মধ্যে অসহায় বিচারপ্রার্থীদের অনুকূলে ৪ কোটি ৫০ লাখ ২৮ হাজার ৮শ’ ২৭ টাকা ক্ষতিপূরণ আদায় করে দেয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন সংস্থাটির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

দেশের দরিদ্র ও অস্বচ্ছল জনগোষ্ঠী, শ্রমিক, সহিংসতার শিকার নারী-শিশু এবং পাচারের শিকার মানুষের জন্য আইনি সেবা নিশ্চিতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার আইন প্রণয়নের মধ্যদিয়ে সরকারি খরচায় আইনগত সহায়তা কার্যক্রম শুরু করে। পরে এই আইনের অধীনে বিভিন্ন বিধি প্রণীত হয়। বিধিতে কারা আইনি সহায়তা পাবেন তা নির্ধারণ করা হয়।

দেশের সবক’টি জেলা আদালত, চৌকি আদালত এবং সুপ্রিমকোর্টে লিগ্যাল এইড সার্ভিস চালু রয়েছে। জেলা লিগ্যাল এইড অফিসগুলোকে এখন শুধু আইনি সহায়তা প্রদানের কেন্দ্র হিসেবেই সীমাবদ্ধ রাখা হয়নি, মামলা জট কমানোর লক্ষ্যে এ অফিসগুলোকে ‘এডিআর কর্ণার’ বা বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির কেন্দ্রস্থল’ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। পক্ষসমূহের সম্মতির ভিত্তিতে লিগ্যাল এইড অফিসে বিকল্প উপায়ে বিরোধ নিষ্পত্তি করা হয়ে থাকে।

২০১৩ সালের ২৮ এপ্রিল জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবসের প্রথম অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিগ্যাল এইড কল সেন্টার ‘জাতীয় হেল্পলাইন’-এর উদ্বোধন করেন। এ হেল্পলাইনে ১৬৪৩০ নম্বরে ফোন করে জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদানকারী সংস্থার মাধ্যমে জনগণ বিনামূল্যে আইনি সহায়তা পাচ্ছেন।–বাসস

দৈনিক কিশোরগঞ্জ
দৈনিক কিশোরগঞ্জ
এই বিভাগের আরো খবর