ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’

রোববার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

১২০

চাকরির আবেদনে ২০০ টাকা ফি নিতে চুক্তি স্বাক্ষর

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০১৯  

সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ২০১৯ সালে পাঁচ হাজারের বেশি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে বাংলাদেশ ব্যাংকের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি সচিবালয় (বিএসসিএস)। বিনামূল্যে আবেদনের পরিবর্তে এবার চাকরিপ্রত্যাশীর কাছ থেকে ২০০ টাকা করে ফি নেওয়া হবে। আর এই ফি নিতে বুধবার বিএসসিএস ও ডাচ-বাংলা ব্যাংকের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

বিএসসিএস সূত্র জানায়, এই চুক্তি অনুযায়ী সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে আবেদনকারীর কাছ থেকে ২০০ টাকা করে ফি নেওয়া হবে। এই ফি ডাচ-বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা রকেটের মাধ্যমে নেওয়া হবে। ফি জমা হওয়া টাকা আবেদন শেষ হলে বিএসসিএস এর সোনালী ব্যাংকের হিসাবে জমা হবে। 

এদিকে, গত ২৬ নভেম্বর সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ‘পাঁচ হাজারের বেশি পদে নিয়োগ সার্কুলার আসছে’ নিয়োগ প্রকাশিত হয়। প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরির নিয়োগে ২০০ টাকা করে ফি আদায় নিয়ে জটিলতার সৃষ্টি হয়, যাতে আটকে ছিল পাঁচ হাজারের বেশি পদে নিয়োগ। 

এ জটিলতার অবসান হওয়ার কথা জানিয়ে বিএসসিএস সূত্র জানায়, ডিসেম্বরে নিয়োগের বড় বিজ্ঞপ্তি আসছে। ৪০ ধরনের পাঁচ হাজারের বেশি পদে নিয়োগের জন্য সমন্বিত বিজ্ঞপ্তি আসবে। সিনিয়র অফিসার, অফিসার (সাধারণ) ও অফিসার (ক্যাশ) পদের পাশাপাশি টেকনিক্যাল পদের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশি হবে। 

উল্লেখ্য, বিএসসিএসের মাধ্যমে সবচেয়ে বড় সার্কুলার আসে ২০১৭ সালে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সাত হাজারের বেশি পদে স্বচ্ছ ও মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের সুপারিশ পেয়েছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। ২০১৮ সালেও চার হাজারের বেশি পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলেছে। এবার পাঁচ হাজারের বেশি পদে বড় নিয়োগ সার্কুলার আসবে।

চাকরিপ্রত্যাশী বেকারদের ওপর বাড়তি চাপ কমাতে সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে নিয়োগে আবেদনে ২০১৫ সালে ফি প্রথা তুলে দেওয়া হয়েছিল। এ প্রথা বাতিল করলে স্বাগত জানান চাকরিপ্রত্যাশীরা। তবে আবারও ফি বসানোর সিদ্ধান্তে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তাদের। কেউ কেউ আবেদনে ফি না বসানোর পক্ষে বললেও ফি নেওয়ার বিষয়টিকেও যৌক্তিক বলছেন অনেক চাকরিপ্রত্যাশী।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের এক সার্কুলারের মাধ্যমে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি গঠন করা হয়। ওই বছরই ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের মানবসম্পদ বিভাগ-১-এর সার্কুলারে রাষ্ট্রীয় বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির নিয়োগে যোগ্য প্রার্থী বাছাইয়ে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি সচিবালয় (বিএসসিএস) গঠিত হয়।

এই সচিবালয় সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংক, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক, বিশেষায়িত বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, কর্মসংস্থান ব্যাংক, আনসার-ভিডিভি উন্নয়ন ব্যাংক, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক এবং সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স করপোরেশন ও ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশে (আইসিবি) নিয়োগে প্যানেল সুপারিশ করে।

দৈনিক কিশোরগঞ্জ
দৈনিক কিশোরগঞ্জ
এই বিভাগের আরো খবর