ব্রেকিং:
বিয়ে বাড়িতে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর চামড়া সংরক্ষণ যথাযথভাবে করা হয়েছে: শিল্প সচিব ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’
  • সোমবার   ০৬ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৩ ১৪২৬

  • || ১২ শা'বান ১৪৪১

১০৪

এই পাঁচটি কথা বাবা-মাকে কখনোই বলা উচিত নয়

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২০  

প্রত্যেক বাবা-মার সবচেয়ে বড় সম্পদ হচ্ছে তার নিজ সন্তান। তাইতো নিজের সর্বস্ব দিয়েই সন্তানকে বড় করে তোলেন বাবা-মা। যদিও সন্তানকে মানুষ করার ধরনটা সবার এক রকম হয় না।

সন্তাকে ভালোভাবে মানুষ করতে যেয়ে ভালোবাসার পাশাপাশি বকাবকিও করতে হয় মা-বাবাকে। তবে যখন সন্তান বড় হয়ে যায় তখন একটু একটু করে বাবা-মার সঙ্গে তর্ক করাও শুরু করে। তাই এই সময়টাতে এমন কিছু কথা সন্তানরা বলেন, যা বাবা-মাকে কখনোই বলা উচিত নয়। এসব কথা বাবা- মাকে কেবল কষ্টই দেয়। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই কথাগুলো সম্পর্কে-

> ‘আমি তোমাকে ঘৃণা করি’- এই কথাটা যেকোনো অভিভাবকের কাছে সবচেয়ে বড় কষ্টের। সন্তান যত বড়ই হয়ে যাক না কেন, এই কথাটি বলা একদমই ঠিক নয়।

> ‘তোমরা আমাকে জন্ম দিলে কেন’- অনেক সন্তানকেই এই কথাটি বলতে শোনা যায়। যা সত্যি খুব খারাপ। যেকোনো অভিভাবকই এই কথা শুনতে মোটেও প্রস্তুত থাকেন না। বিশেষ করে বিবাহবিচ্ছেদের পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় এই অভিযোগ। কিন্তু এই কথাটা সবচেয়ে বেশি আঘাত করে তাদের।

> ‘তুমি বোন বা ভাইকে বেশি ভালোবাসো’- অভিভাবকের কাছে তার সব সন্তানই সমান। হয়তো স্নেহের বহিঃপ্রকাশটা একেকজনের ক্ষেত্রে একেক রকম হয়ে থাকে। কিন্তু এটা কখনো ভাবা উচিত নয় যে, অন্য সন্তানকে তিনি বেশি ভালবাসেন এবং সেটা ভেবে তাকে কটু কথা বলা একেবারেই উচিত নয়।

> ‘তোমরা যদি আমার বাবা-মা না হতে তবে ভালো হতো’- সম্ভবত প্রথম কথাটির চেয়েও এই কথাটি অনেক বেশি কষ্ট দেয় অভিভাবকদের।

> ‘তোমাকে এখন সময় দিতে পারব না’- বাবা-মায়েরা সন্তানকে বড় করে তোলার সময়ে অনেক আত্মত্যাগ করেন। কিন্তু উল্টোটা সব সময়ে দেখা যায় না। যদি ব্যস্ততার কারণেও বয়স্ক অভিভাবককে সময় দিতে না পারা যায়, তাহলেও এভাবে কথা বলা কখনো শোভন নয়।

দৈনিক কিশোরগঞ্জ
দৈনিক কিশোরগঞ্জ
লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর